ঢাকা ০২:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ :
Logo হাজারো অসহায়ের মাঝে ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন মেয়র Logo কল্পলোক আবাসিক মসজিদের জায়গা ব্যক্তির নামে বরাদ্দ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন Logo নিঃস্বার্থে মানব সেবা গ্রুপের ঈদ উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ  Logo ফুলপুরে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট,ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য Logo রামপুর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মোঃ আবুল কাশেমের মৃত্যুতে Logo Logo “মুসলিম কমিউনিটি মৌলভীবাজার” এর তাৎপর্য‍‍` শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo মশা নিয়ন্ত্রণে গবেষণার জন্য গবেষণাগার চালুর ঘোষণা দিয়েছেন Logo বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হৃদয়ে -চেতনায় বাংলাদেশ Logo সাউদার্ন ইউনিভার্সিটিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সংস্কৃতি চর্চা বাড়ানোর আহবান মেয়র রেজাউলের

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • আপডেট সময় : ০৫:১৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ২৬ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষার্থীদের মাঝে মানবিক গুণাবলি বিকশিত করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সংস্কৃতি চর্চা বাড়ানোর আহবান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম
চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার নগরীর চকবাজারের প্যারেড ময়দানে চসিক পরিচালিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে আন্তঃ স্কুল ও আন্তঃ কলেজ বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন মেয়র। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, সংস্কৃতি চর্চা শিশুদের মাঝে মানবিক গুণাবলির বিকাশ ঘটায়। শিশুদের নৈতিকতাবোধসম্পন্ন, সংস্কৃতিমনা আধুনিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নেতৃত্ব দিতে হবে, বাড়াতে হবে সংস্কৃতি চর্চা।

শিক্ষার্থীদের মাঝে সহনশীলতা ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ বাড়াতে এবছর প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে চসিক। এছাড়া ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক বিভিন্ন ইভেন্টও থাকছে এবারের আয়োজনে। চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্যানেল মেয়র
গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, কাউন্সিলর হাসান মাহমুদ হাসনি, হাজী নুরুল হক, হাসান মুরাদ বিপ্লব, নাজমুল হক ডিউক, এম আশরাফুল আলম, আতাউল্লাহ চৌধুরী, মো. ইলিয়াস, নূর মোস্তফা টিনু, সংরক্ষিত কাউন্সিলর নীলু নাগ, শাহীন আকতার রোজী, রুমকি সেনগুপ্ত, আনজুমান আরা বেগম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল হাশেম, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, শিক্ষা কর্মকর্তা রাশেদা আক্তার, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইমাম হোসেন রানা, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম, শাহরীন ফেরদৌসী, উপ-সচিব আশেকে রসুল টিপু সহ চসিকের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সংস্কৃতি চর্চা বাড়ানোর আহবান মেয়র রেজাউলের

আপডেট সময় : ০৫:১৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শিক্ষার্থীদের মাঝে মানবিক গুণাবলি বিকশিত করতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সংস্কৃতি চর্চা বাড়ানোর আহবান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম
চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার নগরীর চকবাজারের প্যারেড ময়দানে চসিক পরিচালিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে আন্তঃ স্কুল ও আন্তঃ কলেজ বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন মেয়র। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, সংস্কৃতি চর্চা শিশুদের মাঝে মানবিক গুণাবলির বিকাশ ঘটায়। শিশুদের নৈতিকতাবোধসম্পন্ন, সংস্কৃতিমনা আধুনিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নেতৃত্ব দিতে হবে, বাড়াতে হবে সংস্কৃতি চর্চা।

শিক্ষার্থীদের মাঝে সহনশীলতা ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ বাড়াতে এবছর প্রথমবারের মতো কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিয়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে চসিক। এছাড়া ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক বিভিন্ন ইভেন্টও থাকছে এবারের আয়োজনে। চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্যানেল মেয়র
গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, কাউন্সিলর হাসান মাহমুদ হাসনি, হাজী নুরুল হক, হাসান মুরাদ বিপ্লব, নাজমুল হক ডিউক, এম আশরাফুল আলম, আতাউল্লাহ চৌধুরী, মো. ইলিয়াস, নূর মোস্তফা টিনু, সংরক্ষিত কাউন্সিলর নীলু নাগ, শাহীন আকতার রোজী, রুমকি সেনগুপ্ত, আনজুমান আরা বেগম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল হাশেম, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, শিক্ষা কর্মকর্তা রাশেদা আক্তার, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইমাম হোসেন রানা, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম, শাহরীন ফেরদৌসী, উপ-সচিব আশেকে রসুল টিপু সহ চসিকের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।