ঢাকা ০১:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ :
Logo হাজারো অসহায়ের মাঝে ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন মেয়র Logo কল্পলোক আবাসিক মসজিদের জায়গা ব্যক্তির নামে বরাদ্দ বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন Logo নিঃস্বার্থে মানব সেবা গ্রুপের ঈদ উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ  Logo ফুলপুরে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট,ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য Logo রামপুর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মোঃ আবুল কাশেমের মৃত্যুতে Logo Logo “মুসলিম কমিউনিটি মৌলভীবাজার” এর তাৎপর্য‍‍` শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo মশা নিয়ন্ত্রণে গবেষণার জন্য গবেষণাগার চালুর ঘোষণা দিয়েছেন Logo বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হৃদয়ে -চেতনায় বাংলাদেশ Logo সাউদার্ন ইউনিভার্সিটিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার চারটি আসনে ১৭ প্রার্থী জামানত হারালেন

মোঃ জালাল উদ্দিন
  • আপডেট সময় : ১০:৩৩:১৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪ ৩৩ বার পড়া হয়েছে
 দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার জেলা চারটি আসনে মধ্যে ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন প্রতিদ্বন্দ্বীতায় চারজন বিজয় হয়েছে ও ১৭ জনই জামানত হারিয়েছেন মৌলভীবাজারের চারটি আসনে বিজয়ী প্রার্থীদের বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন।
গত রবিবার ০৭ জানুয়ারি ২০২৩ইং, রাতে ভোট গণনা শেষে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা ঊর্মি বিনতে সালাম জেলার চারটি আসনের মধ্যে সবগুলোতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে প্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে নৌকার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন যারা ও জামানতের টাকা ফেরত না পাওয়ার মত মতো ভোট পেয়েছেন যারা, তাদের তালিকা।
মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা-জুড়ি) প্রতিদ্বন্দ্বী চারজন প্রার্থীর মধ্যে তিনজনই জামানত হারিয়েছেন জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন নবনির্বাচিত আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী পরিবেশ বন ও জলবায়ু মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দীন তার প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৩৬ হাজার ৩০৮।
জামানত হারিয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোঃ আহমেদ রিয়াজ উদ্দিন (লাঙ্গল)। তিনি পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৮ ভোট অবশ্য এ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোঃ আহমদ রিয়াজ উদ্দিন ভোটের আগের দিন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ময়নুল ইসলাম (ট্রাক) ২ হাজার ৫২৫ ভোট ও তৃণমূল বিএনপির মোঃ আনোয়ার হোসেন (সোনালি আঁশ) ১ হাজার ৫৩৭ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ১৫ হাজার ৬৩৫ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৪৫ হাজার ৮৯৯।
মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনে আটজন প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী মধ্যে ছয়জনই জামানত হারিয়েছেন। এদের মধ্যে সাবেক দুই সংসদ সদস্যও রয়েছেন। জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন নবনির্বাচিত আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোঃ শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল (নৌকা)। তিনি পেয়েছেন ৭২ হাজার ৭১৮ ভোট। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা এ কে এম শফি আহমদ সলমান (ট্রাক) ১৫ হাজার ৫৫২ ভোট।
জামানত হারিয়েছেন তৃণমূল বিএনপি’র প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য এম এম শাহীন (সোনালি আঁশ)। তিনি পেয়েছেন ১১ হাজার ৪৪৯ ভোট। সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল মতিন (কাচি) তিনি পেয়েছেন ৬৬৮ ভোট। জাতীয় পার্টির মোঃ আব্দুল মালিক (লাঙ্গল) তিনি পেয়েছেন ৫৬৫ ভোট। ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী মাওলানা আসলাম হোসাইন রহমানী (মিনার) তিনি পেয়েছেন ৩৬৬ ভোট। বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী মোঃ এনামুল হক মাহতাব (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৩০৫ ভোট ও বিকল্পধারার প্রার্থী মোঃ কামরুজ্জামান সিমু (কুলা) তিনি পেয়েছেন ১৬১ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ২ লাখ ৮৫ হাজার ৪৭২ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৩ হাজার ৫৩৪।
মৌলভীবাজার-৩ (সদর-রাজনগর) আসনে সাতজন প্রার্থী ছিলেন। নৌকার প্রার্থী মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান ১ লাখ ৬৭ হাজার ৮৪৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। অন্য ছয় প্রার্থীই জামানত হারিয়েছেন। তারা হলেন- জাতীয় পার্টির মোঃ আলতাফুর রহমান (লাঙ্গল) তিনি পেয়েছেন ২ হাজার ৬৯৮ ভোট। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) মোঃ আব্দুল মোসাব্বির (মশাল) তিনি পেয়েছেন ২ হাজার ২৪৬ ভোট। বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির তাপস কুমার ঘোষ (হাতুড়ি) তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ২৭৮ ভোট। বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের মোঃ ফাহাদ আলম (ছড়ি) তিনি পেয়েছেন ৯৪০ ভোট। বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোঃ আব্দুর রউফ (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৭৯৫ ভোট ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মোঃ আবু বকর (আম) তিনি পেয়েছেন ৭০৪ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৪ লাখ ৫৬ হাজার ৩৮৮ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৭৯ হাজার ২০।
মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) আসনে তিন প্রার্থীর মধ্যে দুজন জামানত হারিয়েছেন। তারা হলেন- বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী মোঃ আবদুল মুহিত হাসানী (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৯০ ভোট ও ইসলামী ঐক্যজোটের মোঃ আনোয়ার হোসাইন (মিনার) তিনি পেয়েছেন ৫ হাজার ৬৮ ভোট। এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ তিনি ২ লাখ ১২ হাজার ৪৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৪ লাখ ৫৯ হাজার ১০১ জন। প্রদত্ত ভোট ২ লাখ ২৭ হাজার ১৯।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার চারটি আসনে ১৭ প্রার্থী জামানত হারালেন

আপডেট সময় : ১০:৩৩:১৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪
 দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার জেলা চারটি আসনে মধ্যে ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন প্রতিদ্বন্দ্বীতায় চারজন বিজয় হয়েছে ও ১৭ জনই জামানত হারিয়েছেন মৌলভীবাজারের চারটি আসনে বিজয়ী প্রার্থীদের বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন।
গত রবিবার ০৭ জানুয়ারি ২০২৩ইং, রাতে ভোট গণনা শেষে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা ঊর্মি বিনতে সালাম জেলার চারটি আসনের মধ্যে সবগুলোতে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে প্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে নৌকার প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন যারা ও জামানতের টাকা ফেরত না পাওয়ার মত মতো ভোট পেয়েছেন যারা, তাদের তালিকা।
মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা-জুড়ি) প্রতিদ্বন্দ্বী চারজন প্রার্থীর মধ্যে তিনজনই জামানত হারিয়েছেন জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন নবনির্বাচিত আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী পরিবেশ বন ও জলবায়ু মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দীন তার প্রাপ্ত ভোট ১ লাখ ৩৬ হাজার ৩০৮।
জামানত হারিয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোঃ আহমেদ রিয়াজ উদ্দিন (লাঙ্গল)। তিনি পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৮ ভোট অবশ্য এ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোঃ আহমদ রিয়াজ উদ্দিন ভোটের আগের দিন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ময়নুল ইসলাম (ট্রাক) ২ হাজার ৫২৫ ভোট ও তৃণমূল বিএনপির মোঃ আনোয়ার হোসেন (সোনালি আঁশ) ১ হাজার ৫৩৭ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ১৫ হাজার ৬৩৫ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৪৫ হাজার ৮৯৯।
মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া) আসনে আটজন প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী মধ্যে ছয়জনই জামানত হারিয়েছেন। এদের মধ্যে সাবেক দুই সংসদ সদস্যও রয়েছেন। জামানতের টাকা ফেরত পাওয়ার মতো ভোট পেয়েছেন নবনির্বাচিত আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোঃ শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল (নৌকা)। তিনি পেয়েছেন ৭২ হাজার ৭১৮ ভোট। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা এ কে এম শফি আহমদ সলমান (ট্রাক) ১৫ হাজার ৫৫২ ভোট।
জামানত হারিয়েছেন তৃণমূল বিএনপি’র প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য এম এম শাহীন (সোনালি আঁশ)। তিনি পেয়েছেন ১১ হাজার ৪৪৯ ভোট। সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল মতিন (কাচি) তিনি পেয়েছেন ৬৬৮ ভোট। জাতীয় পার্টির মোঃ আব্দুল মালিক (লাঙ্গল) তিনি পেয়েছেন ৫৬৫ ভোট। ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী মাওলানা আসলাম হোসাইন রহমানী (মিনার) তিনি পেয়েছেন ৩৬৬ ভোট। বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী মোঃ এনামুল হক মাহতাব (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৩০৫ ভোট ও বিকল্পধারার প্রার্থী মোঃ কামরুজ্জামান সিমু (কুলা) তিনি পেয়েছেন ১৬১ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ২ লাখ ৮৫ হাজার ৪৭২ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৩ হাজার ৫৩৪।
মৌলভীবাজার-৩ (সদর-রাজনগর) আসনে সাতজন প্রার্থী ছিলেন। নৌকার প্রার্থী মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান ১ লাখ ৬৭ হাজার ৮৪৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। অন্য ছয় প্রার্থীই জামানত হারিয়েছেন। তারা হলেন- জাতীয় পার্টির মোঃ আলতাফুর রহমান (লাঙ্গল) তিনি পেয়েছেন ২ হাজার ৬৯৮ ভোট। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) মোঃ আব্দুল মোসাব্বির (মশাল) তিনি পেয়েছেন ২ হাজার ২৪৬ ভোট। বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির তাপস কুমার ঘোষ (হাতুড়ি) তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ২৭৮ ভোট। বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের মোঃ ফাহাদ আলম (ছড়ি) তিনি পেয়েছেন ৯৪০ ভোট। বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোঃ আব্দুর রউফ (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৭৯৫ ভোট ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মোঃ আবু বকর (আম) তিনি পেয়েছেন ৭০৪ ভোট। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৪ লাখ ৫৬ হাজার ৩৮৮ জন। প্রদত্ত ভোট ১ লাখ ৭৯ হাজার ২০।
মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) আসনে তিন প্রার্থীর মধ্যে দুজন জামানত হারিয়েছেন। তারা হলেন- বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী মোঃ আবদুল মুহিত হাসানী (মোমবাতি) তিনি পেয়েছেন ৫ হাজার ৩৯০ ভোট ও ইসলামী ঐক্যজোটের মোঃ আনোয়ার হোসাইন (মিনার) তিনি পেয়েছেন ৫ হাজার ৬৮ ভোট। এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ তিনি ২ লাখ ১২ হাজার ৪৯১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এ আসনটিতে মোট ভোটার ৪ লাখ ৫৯ হাজার ১০১ জন। প্রদত্ত ভোট ২ লাখ ২৭ হাজার ১৯।